সোমবার, ১৪ই জুন, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ৩১শে জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ৪ঠা জিলকদ, ১৪৪২ হিজরি.
সাপ্তাহিক জন্মভূমি পড়তে এখানে ক্লিক করুন

ইমরান পাকিস্তানের ক্রিকেট ধ্বংস করেছেন

১৩-আগ-২০২০ | jonmobhumi | 305 views
Imran khan

Spread the love

পাকিস্তানের প্রথম ও এখন পর্যন্ত একমাত্র বিশ্বকাপ এসেছে তাঁর নেতৃত্বে। ইমরান খান পাকিস্তানের ক্রিকেটের কত বড় কিংবদন্তি, তা সম্ভবত কাউকে বলে দিতে হয় না। ক্রিকেট ছাড়ার পর রাজনীতিতে যোগ দেওয়া ইমরান এখন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রীও। পাকিস্তানের ক্রিকেট বোর্ডের (পিসিবি) প্রধান পৃষ্ঠপোষকও। সেই ইমরানের হাতেই নাকি পাকিস্তানের ক্রিকেট ধ্বংস হচ্ছে! এমনটাই বলছেন পাকিস্তানের কিংবদন্তি ব্যাটসম্যান ও ইমরানের সাবেক সতীর্থ জাভেদ মিয়াঁদাদ।

ইমরানের অপরাধ কী? মিয়াঁদাদের চোখে, পিসিবির বড় বড় দায়িত্বে অযথাই অযোগ্য বিদেশিদের নিয়ে আসছেন ইমরান। পিসিবি কীভাবে পরিচালিত হচ্ছে, সেদিকেও নাকি ইমরানের নজর নেই। তা ছাড়া পাকিস্তানের ঘরোয়া ক্রিকেটে আগে সরকারি প্রতিষ্ঠানের নামে কিছু দল আসত, সেই ‘ডিপার্টমেন্টাল ক্রিকেট’ বন্ধ করে ইমরান অনেক ক্রিকেটারকে বেকার করে দিয়েছেন বলেও মনে হচ্ছে মিয়াঁদাদের।

‘পিসিবির একজন কর্মকর্তারও ক্রিকেটের প্রাথমিক জ্ঞানটুকুও নেই। বোর্ডের এই করুণ দশা নিয়ে আমি ব্যক্তিগতভাবে ইমরানের সঙ্গে কথা বলব। আমাদের দেশের জন্য সঠিক লোক নয়, এমন কাউকেই ছাড় দেব না’—ইউটিউবে এক ভিডিওতে পরশু বলেছেন ৬৩ বছর বয়সী মিয়াঁদাদ।

এরপর ‘বড়ে মিয়া’র নজর পড়ল পিসিবির প্রধান নির্বাহী ওয়াসিম খানের দিকে। পাকিস্তানি বংশোদ্ভূত হলেও ওয়াসিমের জন্ম ইংল্যান্ডে, পেশাদার ক্রিকেটও খেলেছেন ইংল্যান্ডেই। ২০১৮ সালের ডিসেম্বরে তাঁকে প্রধান নির্বাহী করে নিয়ে আসে পিসিবি, তখন ইংল্যান্ড ছেড়ে পাকিস্তানে আসেন ওয়াসিম। কিন্তু এমন একজন ‘বিদেশি’কে ক্রিকেট বোর্ডের প্রধান নির্বাহী করে আনা মোটেই ভালো লাগেনি মিয়াঁদাদের, ‘আপনি বিদেশ থেকে একজনকে নিয়ে এলেন, সে যদি আমাদের থেকে কিছু চুরি করে নিয়ে পালায় তাকে কীভাবে ধরবেন? পাকিস্তানে সবাই কি মরে গেছে যে আপনাদের বাইরে থেকে কাউকে আনতে হলো? আমি চাই পাকিস্তানের মানুষ জেগে উঠুক। পুরো দেশে যদি এর চেয়ে ভালো কেউ না থাকে তখন আপনি বাইরে থেকে কাউকে নিয়ে আসতে পারেন। কিন্তু এখানে তো ব্যাপারটি তেমন নয়।’

বোর্ডের ব্যক্তিদের সমালোচনার পর মিয়াঁদাদের সমালোচনায় বোর্ডের একটি সিদ্ধান্ত—ডিপার্টমেন্টাল ক্রিকেট বন্ধ করে দেওয়া। এতে অনেক ক্রিকেটার বেকার হয়ে পড়েছেন বলেই মনে হচ্ছে মিয়াঁদাদের, ‘যে ক্রিকেটাররা এখন খেলায় আসছে, ওদের ক্রিকেটে দারুণ ভবিষ্যৎ থাকা উচিত। আমি চাই না এদের কেউ ভবিষ্যতে ক্রিকেট ছেড়ে শ্রমিক বনে যাক। ডিপার্টমেন্ট ক্রিকেটকে বাইরে রেখে ওরা অনেক ক্রিকেটারকে বেকার করে দিয়েছে। নিজেরাও চাকরি দিতে পারছে না। এটা আগেও বলেছিলাম, কিন্তু তখন তারা বুঝতে পারেনি।’

এ সবকিছুতে ইমরান খানের সম্পর্ক কী? মিয়াঁদাদের চোখে, দেশের ক্রিকেট বোর্ড কীভাবে চলছে, সেদিকে যতটুকু নজর দেওয়া দরকার, ইমরান তা দিচ্ছেন না। বেশ কড়া ভাষাতেই ‘বড়ে মিয়া’ বললেন, ‘আমি তোমার (ইমরানের) অধিনায়ক ছিলাম, এর উল্টোটা কখনো হয়নি। আমিই সেই মানুষ ছিলাম যে তোমার হয়ে তদবির করেছে। তুমি ভাবো তুমি ছাড়া আর কেউ ক্রিকেট বোঝে না। তোমার নিজেকে নিয়ে, নিজের চারপাশের মানুষকে নিয়ে নতুন করে ভাবা উচিত। পিসিবিতে কাদের রেখেছ, খুব দেরি হওয়ার আগে সেটাও আরেকবার ভাবা উচিত।’

সার্চ/অনুসন্ধান করুন