রবিবার, ৪ঠা ডিসেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ১৯শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ১০ই জমাদিউল আউয়াল, ১৪৪৪ হিজরি.
সাপ্তাহিক জন্মভূমি পড়তে এখানে ক্লিক করুন

ট্রাম্পের ভেটোকে উড়িয়ে দিলো কংগ্রেস

০২-জানু-২০২১ | jonmobhumi | 358 views

Spread the love

নিজস্ব প্রতিবেদক: যুক্তরাষ্ট্রে প্রতিরক্ষা খাতের ব্যয়সংক্রান্ত একটি বিলে প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের দেওয়া ভেটোকে উড়িয়ে দিয়েছে কংগ্রেস। প্রতিরক্ষা ব্যয় বিলে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের আপত্তি নিয়ে শুক্রবার খ্রিষ্টীয় নববর্ষের প্রথম দিন তাঁর দল রিপাবলিকান–নিয়ন্ত্রিত কংগ্রেসের সিনেটে অধিবেশন বসে। সিনেটে এ ধরনের অধিবেশন ব্যতিক্রম। এর আগে ডেমোক্র্যাট–নিয়ন্ত্রিত প্রতিনিধি পরিষদে বিলটির ওপর ভোটাভুটি অনুষ্ঠিত হয়।তবে ট্রাম্পের শাসনামলে এর আগে এ রকম ঘটনা আর ঘটেনি।
বিলে আগামী বছর যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিরক্ষানীতি বাবদ ৭৪ হাজার কোটি ডলারের তহবিল বরাদ্দের কথা বলা হয়েছে। আগামী কয়েক সপ্তাহের মধ্যে প্রেসিডেন্ট হিসেবে বিদায় নিতে যাওয়া ট্রাম্প বিলের কয়েকটি ধারায় নিজের অসম্মতি প্রকাশ করেন।

ন্যাশনাল ডিফেন্স অথোরাইজেশন অ্যাক্ট (এনডিএএ) নামের বিলটির ওপর বিতর্কের পর এ নিয়ে সিনেটে ভোটাভুটি হয়। এতে বিলের পক্ষে ভোট দেন ৮১ জন। বিপক্ষে ভোট পড়ে মাত্র ১৩টি। যুক্তরাষ্ট্রে প্রেসিডেন্টের কোনো আপত্তি বা ভেটো প্রত্যাখ্যান করতে হলে কংগ্রেসের উভয় কক্ষে এ–সংক্রান্ত প্রস্তাব দুই-তৃতীয়াংশ সংখ্যাগরিষ্ঠ ভোটে পাস হওয়া প্রয়োজন।

বিতর্ক শুরুর আগে সিনেটে রিপাবলিকান–দলীয় নেতা মিচ ম্যাককনেল বলেন, তিনি ওই বিল পাস করতে দৃঢ়প্রতিজ্ঞ। জবাবে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প নির্দিষ্ট করে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমের সুরক্ষা নিয়ে প্রস্তাবের ওপর ভোট নেওয়ার অনুরোধ জানিয়েছিলেন।
নভেম্বরের নির্বাচনের পর নতুন কংগ্রেস শপথ নিতে যাওয়ার মাত্র দুদিন আগে ট্রাম্পকে এভাবে প্রত্যাখ্যান করল বিদায়ী কংগ্রেস।

প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প আফগানিস্তান ও ইউরোপের বিভিন্ন দেশে মার্কিন সেনাদের উপস্থিতি কমিয়ে আনতে ও মার্কিন সামরিক ঘাঁটিগুলো থেকে কনফেডারেট নেতাদের নাম মুছে ফেলতে চান। সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমগুলোকে দেওয়া দায়বদ্ধতার সুরক্ষাও তুলে নেওয়ার পক্ষপাতী তিনি।

বিতর্ক শুরুর আগে সিনেটে রিপাবলিকান–দলীয় নেতা মিচ ম্যাককনেল বলেন, তিনি ওই বিল পাস করতে দৃঢ়প্রতিজ্ঞ। জবাবে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প নির্দিষ্ট করে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমের সুরক্ষা নিয়ে প্রস্তাবের ওপর ভোট নেওয়ার অনুরোধ জানিয়েছিলেন।
প্রতিনিধি পরিষদের স্পিকার ও কংগ্রসের প্রভাবশালী ডেমোক্র্যাট সদস্য ন্যান্সি পেলোসি বলেছেন, ‘ওই বিলে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের আপত্তি জানানো খুবই বেপরোয়া মনোভাবের। এমন পদক্ষেপ আমাদের সেনাদের ক্ষতি করত, আমাদের নিরাপত্তাকে বিপদের মুখে ফেলত এবং কংগ্রেসের ইচ্ছাকে ক্ষুণ্ন করত।’

সূত্রঃ বাংলা প্রেস

সার্চ/অনুসন্ধান করুন