সোমবার, ২৬শে সেপ্টেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ১১ই আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ৩০শে সফর, ১৪৪৪ হিজরি.
সাপ্তাহিক জন্মভূমি পড়তে এখানে ক্লিক করুন

বাইডেনের প্রশাসনে ২০ জন ভারতীয় বংশোদ্ভূত মার্কিনী।

২২-জানু-২০২১ | jonmobhumi | 372 views

Spread the love
 বাইডেনের প্রশাসনে ২০ জন ভারতীয় বংশোদ্ভূত মার্কিনী। বিভাস মল্লিক, নিউইর্য়ক থেকে। January 22,2021 মিঃ জোসেফ রোবেন বাইডেন আর মাত্র একদিন পরেই মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ৪৬তম প্রেসিডেন্ট হিসাবে শপথ নিতে যাচ্ছেন, ওনার সহকারী অর্থাৎ ভাইস প্রেসিডেন্ট হিসাবে শপথ নেবেন ভারতীয় জামাইকান বংশোদ্ভূত মিসেস কমলা হ্যারিস।  সেই সাথে বাইডেনের প্রশাসনে  আরো ২০ ভারতীয় বংশোদ্ভূত  মার্কিনী উচ্চ পদস্থ কর্মকর্তা।
ষাটের দশকের শুরুতেই মার্কিনীদের আগ্রহ বাড়ে ভারতীয় সাংস্কৃতি, উচ্চাঙ্গ সংগীত, নৃত্যকলা ও যোগাসনের প্রতি, ধীরে ধীরে ব্যাপক  জনপ্রিয়তা  লাভ করে ভারতীয় মসলাযুক্ত  সুস্বাধু  খাদ্য  সামগ্রীতেও। সত্তরের দশকের মাঝামাঝি  থেকে নিউ ইয়র্ক ও ওয়াশিংটনসহ  যুক্তরাষ্ট্রের বড় শহর গুলোতে ব্যাপক জনপ্রিয় হতে থাকে ভারতীয় রেস্টুরেন্ট ও পানশালাগুলো।

আশির দশক থেকেই, প্রেসিডেন্ট রোনাল্ড রিগ্যানের  হাত ধরে  মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে ভারতীয় বংশোদ্ভূতদের হোয়াইট হাউজে প্রবেশদ্বার উন্মোচিত হয়, প্রেসিডেন্ট রিগানের ব্যক্তিগত চিকিৎসকও ছিলেন একজন ভারতীয় বংশোদ্ভূত।

মাত্র কয়েক দশক আগে রাজনৈতিকভাবে  সমগ্র পৃথিবী  ছিল ন্যাটো ও ওয়ারসো   নামক দুইভাগে বিভক্ত সামরিক শক্তির আওতায়।   ভারত রাজনৈতিক কারনে সোভিয়েত ইউনিয়নের নেতৃত্বে ওয়ারসো জোট   ভূক্ত ছিল আবার যুক্তরাষ্ট্রও ছিল রাজনৈতিক কারনে পাকিস্তান ঘনিস্ঠ। দুদশকের মধ্যেই পাকিস্তান পরিনত হয় ভয়ংকর এক সন্ত্রাসবাদী রাস্ট্রে আর সোভিয়েত ইউনিয়ন ভেঙে যাওয়ায় চীনকে রাজনৈতিকভাবে মোকাবিলা করার জন্য ভারত পরিনত হয় যুক্তরাষ্ট্রের অতান্ত ঘনিস্ঠ বন্ধু রাস্ট্র।
পর্যায় ক্রমে দুদেশের মাঝে আদান প্রদান হয় চিকিৎসা সামগ্রী, উচ্চতর প্রোকৌশল সরন্জামাদিসহ বৃদ্ধি পেতে থাকে নানাবিধ বানিজ্য।
এমুহুর্তে যুক্তরাষ্ট্রের মোট জনসংখ্যার ১% ভারতীয় বংশোদ্ভূত, তবুও মার্কিন প্রশাসনে তাদের গুরুত্ব বেড়েই চলেছে। হবু প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের টিমে এলেন ২০ জন ভারতীয় মার্কিনী, তারমধ্যে ১৭ জনই এলেন হোয়াইট হাউজে। ২০ জনের মধ্যে ১৩ জনই মহিলা, যাদের মধ্যে রয়েছেন বাঙালী সুমনা গুহ, তাকে আনা হয়েছে সিনিয়র ডিরেক্টর ফর সাউথ এশিয়া পদে আর এবারই প্রথম এতজন ভারতীয় বংশোদ্ভূত মার্কিনী এলেন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রশাসনে।
তালিকার শীর্ষে রয়েছেন মীরা ট্যান্ডেন, তিনি মনোনীত হয়েছেন ডিরেক্টর অফ দ্য হোয়াইট হাউজ অফিস অফ ম্যানেজমেন্ট  বাজেটের মতো গুরুত্বপূর্ণ পদে। মার্কিন সার্জন জেনারেল হচ্ছেন বিবেক মূর্তি। এসোসিয়েট এটর্নি জেনারেল হচ্ছেন বনিতা গুপ্তা। নাগরিক নিরাপত্তা, গনতন্ত্র ও মানবাধিকার দফতরের আন্ডার সেক্রেটারি অফ স্টেট পদে আসছেন উজরা জেয়া। যুক্তরাষ্ট্রের পরবর্তী ফাস্ট লেডি জিল বাইডেনের পলিসি ডিরেক্টর ও ডিজিটাল ডিরেক্টর হচ্ছেন মালা আদিগা ও গরিমা বর্মা। হোয়াইট হাউসের ডেপুটি প্রেস সেক্রেটারি হচ্ছেন সাবরিনা সিং।
এই প্রথম ভারতীয় মার্কিনীকে বাইডেন প্রশাসনিক পদে এমন দুজনকে বেছে নিয়েছেন যাদের শেকড় রয়েছে কাশ্মীরে, হোয়াইট হাউস অফিস অফ ডিজিটাল স্ট্র্যাটেজি বিভাগের পার্টনারসিপ ম্যানেজার হচ্ছেন আয়সা শাহ ও ইউ এস ন্যাশনাল ইকোনমিক কাউন্সিলের ডেপুটি ডিরেক্টরের মতো গুরুত্বপূর্ণ পদে নিয়োগ দেয়া হচ্ছে সামিরা ফাজিলিকে, এই কাউন্সিলেই ডেপুটি ডিরেক্টর হচ্ছেন ভরত রামমূর্তি।
হোয়াইট হাউসে প্রেসিডেন্টের নিজস্ব কর্মচারী দফতরে ডেপুটি ডিরেক্টর হচ্ছেন গৌতম রাঘবন, ডিরেক্টর স্পিচরাইটিং পদে বিনয় রেড্ডি। প্রেসিডেন্টের সহকারী প্রেস সেক্রেটারী পদে নিয়োগ পাচ্ছেন বেদান্ত প্যাটেল। গুরুত্বপূর্ণ জাতীয়  নিরাপত্তা পরিষদে এলেন  তরুন ছাবরা, সুমনা গুহ ও শান্তি কালথিল। হোয়াইট হাউসের ক্লাইমেট পলিসির  সিনিয়র  এডভাইসর পদে মনোনীত হয়েছেন সোনিয়া আগরওয়াল এবং কোভিড রেসপন্স টিমে এসেছেন বিদুর শর্মা। অফিস অফ দ্য হোয়াইট হাউস কাউন্সিলে যোগ দিয়েছেন নেহা গুপ্তা ও রিমা শাহ।

বিভাস মল্লিক, নিউইর্য়ক থেকে। January 22,2021
 

সার্চ/অনুসন্ধান করুন