সোমবার, ৫ই ডিসেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ২০শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ১১ই জমাদিউল আউয়াল, ১৪৪৪ হিজরি.
সাপ্তাহিক জন্মভূমি পড়তে এখানে ক্লিক করুন

বাবুনগরী-মামুনুল হকের মামলার তদন্ত করবে পিবিআই

০৭-ডিসে-২০২০ | jonmobhumi | 431 views

Spread the love

হেফাজতের ইসলামীর আমীর জুনায়েদ বাবুনগরী, খেলাফত মজলিসের নেতা মামুনুল হক ও চরমোনাই পীর সৈয়দ ফয়জুল করীমসহ তিনজনের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহীতার অভিযোগ তদন্তের দায়িত্ব পেয়েছে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই)। সোমবার আদালত পুলিশের এ সংস্থাকে অভিযোগ তদন্তের নির্দেশ দেয়।

এর আগে বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য বিরোধী বক্তব্য দেয়ায় মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চ ও বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশন নামের দু’টি সংগঠন তাদের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহীতার অভিযোগ এনে ঢাকার মুখ্য মহানগর হাকিমের আদালতে মামলা দায়ের করে।

রাষ্ট্রদ্রোহীতার অভিযোগে মামলার আবেদনের শুনানীর পর আদালত পিবিআইকে অভিযোগ তদন্ত করে জানুয়ারির প্রথম সপ্তাহের মধ্যে আদালতে প্রতিবেদন পেশ করার নির্দেশ দেয়।

ইতোমধ্যে ইসলামী দলগুলো ঢাকার ধূপখোলা এলাকায় বঙ্গবন্ধুর নির্মাণাধীন ভাস্কর্যের বিরোধীতা করে সমাবেশ করেছে। হেফাজতে ইসলামীর আমীর জুনায়েদ বাবুনগরী, যুগ্ম মহাসচিব মামুনুল হকসহ কয়েকটি সংগঠনের নেতারা ভাস্কর্য-বিরোধী বক্তব্য দিয়েছেন।

সম্প্রতি জুনায়েদ বাবুনগরী এক বক্তব্যে বলেন, ‘কেউ যদি আমার আব্বার ভাস্কর্য স্থাপন করে, সর্বপ্রথম আমি আমার আব্বার ভাস্কর্যকে ছিঁড়ে, টেনে-হিঁচড়ে ফেলে দেব।’

মামুনুল হক অবশ্য বলেছেন, এ বিষয়ে তারা কথা বলেই যাবেন।

কয়েক সপ্তাহ ধরে কয়েকটি ইসলামী সংগঠন প্রতি শুক্রবার ভাস্কর্য বিরোধী কয়েকটি সমাবেশ করেছে। ফলে ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগের সাথে ইসলামী দলগুলোর টানাপোড়ন চলছে।

আবার কয়েকজন ইসলামী চিন্তাবিদ বিবৃতি দিয়ে বলছেন, যেকোনো উদ্দেশে ভাস্কর্য তৈরি ইসলামে নিষিদ্ধ। তবে পাল্টাপাল্টি বক্তব্যে বিতর্ক আরো চাঙ্গা হয়েছে উঠেছে।

এ দিকে বিতর্কের মাঝেই কুষ্টিয়াতে বঙ্গবন্ধুর একটি নির্মাণাধীন ভাস্কর্য ভাঙচুর করা হয়েছে।

সার্চ/অনুসন্ধান করুন